মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

বিয়ের নামে প্রতারণার অভিযোগে নববধূ কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে বিয়ের নামে প্রতারণার মাধ্যমে শ^শুর পক্ষের কাছ থেকে সাড়ে ২৭ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে নুরজাহান স্মৃতি নামের এক নববধূকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। নববধূর শ্বশুর পক্ষের দায়ের হওয়া মামলায় বুধবার আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্মৃতির তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে রোববার আদালতে আবেদন করেছেন পুলিশ। স্মৃতি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার এলাকার মৃত নুরনবীর মেয়ে।
ভুক্তভোগীর পরিবার ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, কমলনগর উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চরজাঙ্গালীয়া এলাকার মো. নুরনবীর ছেলে রাশিয়া প্রবাসী মো. খোকনের সঙ্গে ২০২০ সালের ১৩ নভেম্বর ১০ লাখ টাকা দেনমোহরে মুঠোফোনে নুরজাহান স্মৃতির বিয়ে হয়। খোকন প্রবাসে থাকায় দেনমোহরের নিশ্চয়তার জন্য তার বড় ভাই আবুল খায়ের মানিকের ব্যাংক হিসাবের ১০ লাখ টাকার একটি চেক সুরক্ষা হিসেবে রেখে দেয় মেয়ের পরিবার। বিয়ের পর স্মৃতি স্বামীর গ্রামের বাড়িতে থাকতে অপারগতা প্রকাশ করে স্বামীকে বিভিন্নভাবে বুঝিয়ে জেলা শহরে জমি কেনার প্রস্তাব দেয়। খোকন রাজি হয়ে জমি কেনার জন্য নববধূর কাছে ১০ লাখ টাকা পাঠায়। এভাবে বিভিন্ন অজুহাতে খোকনের কাছ থেকে ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে দাবি ভুক্তভোগীর পরিবারের।
এদিকে খোকন রাশিয়া থেকে দেশে আসলে ১৯ জুন স্মৃতির বাড়িতে আনুষ্ঠানিক বিয়ে হয়। এর পর স্মৃতিকে খোকন তার বাড়িতে তুলে নিতে চাইলে মেয়ের পরিবার কালক্ষেপণ শুরু করে। এরমধ্যে হঠাৎ করে ১৮ জুলাই স্মৃতি লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে খোকনকে তালাক দেন। এ ঘটনায় খোকনের বড় ভাই আবুল খায়ের মানিক গত ২১ আগস্ট বাদী হয়ে কমলনগর থানায় নুরজাহান স্মৃতিসহ সাতজনের নামে প্রতারণা মামলা দায়ের করেন। মামলায় স্মৃতি ছাড়াও তার মা জেসমিন আক্তার, নানা সালেহ আহম্মদ, মামা মো. ইব্রাহিম, মো. রিংকু, আলী হায়দার চৌধুরী ও ঘটক মো. শাহজাহানকে আসামি করা হয়।
ভুক্তভোগী প্রবাসী খোকন জানান, স্মৃতিকে পছন্দ হওয়ায় তার সব শর্ত তারা মেনে নিয়েছেন। এ সুযোগে স্মৃতি বিভিন্ন অজুহাতে তাদের কাছ থেকে ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। বিয়ের নামে স্মৃতিসহ তার পরিবার পরিকল্পিতভাবে প্রতারণা করেছে। কেউ যেন এমন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, এ কারণে প্রতারকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন তিনি।
এদিকে এ বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য নুরজাহান স্মৃতির মা জেসমিন আক্তারের মুঠোফোনে কল দেওয়া হলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।
বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ সেলিম জানান, আসামীদের মধ্যে ঘটক শাহজাহান ছাড়া অন্য ছয় আসামি বুধবার আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এ সময় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক পলাশ বর্দ্ধন আসামিদের মধ্যে নববধূ স্মৃতির জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ এবং অন্য আসামিদের জামিন মঞ্জুর করেন। স্মৃতি এখন জেলা কারাগারে রয়েছে।
কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মোসলেহ্ উদ্দিন জানান, বিয়ের নামে স্মৃতি ও তার পরিবার প্রবাসীর সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। স্মৃতিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে রোববার আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Priyo Upakul
Design & Developed BY N Host BD
error: Content is protected !!