শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন

কমলনগরে ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগে মাদরাসাশিক্ষক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে শিশুছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাওলানা গিয়াস উদ্দিন (৩০) নামে কওমি মাদরাসার এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার চরকাদিরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তার গিয়াস উপজেলার চরজগবন্ধু এলাকার নাজিম উদ্দিন মাঝীর ছেলে এবং হাজিরহাট মারকাজুল উলুম কওমি মাদরাসার আবাসিক শিক্ষক।
পুলিশ ও ভুক্তভোগী শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরফলকন জাজিরা এলাকার ১১ বছর বয়সী ওই শিশু এক বছর ধরে হাজিরহাট মারকাজুল উলুম কওমি মাদরাসায় হিফ্জ শাখায় লেখাপড়া করছে। মাদরাসার আবাসিক ছাত্র হওয়ার সুবাধে আবাসিক শিক্ষক মাওলানা গিয়াস উদ্দিন প্রায়ই তাকে যৌন হয়রানি (বলাৎকার) করতেন। এতে অতিষ্ঠ হয়ে ২০দিন আগে ছাত্রটি পালিয়ে বাড়িতে চলে যায়। পরে স্বজনরা তাকে পুনরায় মাদরাসায় দিয়ে যান।
এদিকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই শিক্ষক আবারও শিশুটিকে বলাৎকার করে। এ সময় শিশুটি কান্নাকাটি করলে ওই শিক্ষক নিজের কক্ষে তাকে আটকে রাখেন। পরদিন দুপুরে জুমার নামাজের সময় কৌশলে শিশুটি পালিয়ে বাড়িতে গিয়ে ওঠে। একপর্যায়ে স্বজনদের কাছে ঘটনাটি খুলে বললে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ওই শিক্ষককে ধরতে মাদরাসায় অভিযান চালান। কিন্তু এরই মধ্যে সে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ উপজেলার চরকাদিরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন।
কমলনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন বলেন, ‘গ্রেপ্তার গিয়াস উদ্দিনকে শনিবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তার ও ভুক্তভোগী শিশুর ডিএনএ পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Priyo Upakul
Design & Developed BY N Host BD
error: Content is protected !!