বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন

ধর্ষণ-গণধর্ষণের ঘটনায় আলোচিত ছিল রামগতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিদায়ী ২০২০ সালে অনেকগুলো ঘটনায় আলোচিত ছিল লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলা। এর মধ্যে গণধর্ষণের তিনটি ঘটনা আলোচিত হয়েছিল দেশব্যাপি। আলোচনায় ছিল বাবা কর্তৃক নিজ মেয়েকে ধর্ষণসহ বেশ কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনাও। এছাড়া ট্রলারডুবি, অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান, স্কুলছাত্রী নিজেই নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করা ও চুরির অভিযোগে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার পদ হারানোসহ নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ ধসে শ্রমিক আহতের ঘটনাগুলোও ছিল বেশ আলোচিত।
তরুণীকে মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ
২০২০ সালের শুরুর দিকে ২৩ জানুয়ারি রাতে উপজেলার চরআফজল এলাকার এক তরুণী (১৭) প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তিন যুবক তরুণীটিকে মুখ বেঁধে তুলে বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা তরুণীর মা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্ত একই এলাকার মিরাজ হোসেন, ইউছুফ ও ওছমান নামে তিন যুবককে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেন। অভিযোগপত্র দায়েরের পর আদালতে মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।
মামলা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিধবাকে গণধর্ষণ
মামলা সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে ৩ অক্টোবর রাতে উপজেলার চরকলাকোপা এলাকায় বিধবা এক নারীকে (৩৮) স্থানীয় পাঁচ যুবক ঘরে ঢুকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে ধর্ষকরা তাকে হাত-পা ও চোখ-মুখ বেঁধে ঘরের পেছনে ফেলে রাখে যায়। পরদিন ৪ অক্টোবর সকালে পুলিশ অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় ওই নারী নিজেই বাদী হয়ে ৫ অক্টোবর রামগতি থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার আসামি একই এলাকার আব্দুল করিম, সোহেল, জামাল, আরিফ ও আলাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেন। আদালতের নির্দেশে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ওই পাঁচ আসামিসহ ধর্ষণের শিকার ওই বিধবার নমুনা সিআইডির সদর দপ্তরে রয়েছে।
বাবা-মাকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণ
১৩ ডিসেম্বর রাতে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের চরনেয়ামত এলাকায় পারিবারিক বিরোধের জের ধরে চার যুবক দরজা ভেঙে বসতঘরে ঢুকে বাবা-মাকে বেঁধে এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে তারা ওই গৃহবধূকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে পালিয়ে গেলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে মো. মিরাজ নামে একজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ মিরাজকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবদও করেন। পরে ২৮ ডিসেম্বর তার ডিএনএ পরীক্ষা করানো হয়।
ঘটেছিল বেশ কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনা
গেল বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি রাতে উপজেলার গুচ্ছগ্রাম এলাকায় বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে ধর্ষণ শেষে প্রেমিক জাবেদ কুপিয়ে জখম করে মৃতভেবে ফেলে রাখে। ১৭ এপ্রিল রাতে উপজেলার চরআলেকজান্ডার ইউনিয়নের জনতা বাজার এলাকায় বাক-প্রতিবন্ধী এক কিশোরী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হয়ে প্রতিবেশী মো. হোসেনের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন। একই রাতে উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের বয়ারচর এলাকায় প্রেমিক রাশেদ উদ্দিন তরুণী প্রেমিকাকে বাড়ির পাশের নির্জন জায়গায় ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। ২১ এপ্রিল সকালে উপজেলার শ্যামলগ্রাম এলাকায় এক তরুণী নিজ বসতঘরে মো. লিটন নামে এক যুবকের হাতে জোরপূর্বক ধর্ষণ শিকার হন। ৪ এপ্রিল রাতে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের চরনেয়ামত এলাকায় আফছার উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি বিয়ের প্রলোভনে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে ধর্ষণ করে। ৩১ মে রামগতি পৌরসভার চরহাসান-হোসেন এলাকায় অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া এক মাদরাসাছাত্রী হাবিবুর রহমান আশিক নামে এক তরুণের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ২৪ আগস্ট রাতে উপজেলার চরবাদাম ইউনিয়নের চরকলাকোপা এলাকার ১১ বছর বয়সী এক শিশুকে মো. মাকছুদ নামে এক প্রতিবেশী বিস্কুট খাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। ১৮ নভেম্বর উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের রামগতিরহাট এলাকায় আবুল কাশেম নামে এক প্রতিবেশীর দ্বারা আরও এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হন। ৫ ডিসেম্বর উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের দক্ষিণ টুমচর এলাকায় বাবা তার ১৩ বছর বয়সী একমাত্র মেয়েকে ধর্ষণ করেন।

ওইসব ঘটনা ছাড়াও ১ জানুয়ারি উপজেলার বালুরচর উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী লামিয়া বেগমের বাল্যবিয়ে তার নিজেরই রুখে দেওয়া, ১৫ মার্চ র‌্যাবের অভিযানে রামগতিরহাট এলাকায় অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান, চুরির অভিযোগে আগস্ট মাসে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মো. পারভেজ দল থেকে অব্যাহতি পাওয়া, ৮ সেপ্টেম্বর ‘রামগতি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের’ নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ ধসে তিন শ্রমিক আহত হওয়া, ১৪ ডিসেম্বর মেঘনা নদীর আলেকজান্ডার এলাকায় ট্রলারডুবির ঘটনায় এসিআই কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার ও পরদিন মেঘনা নদীর উপজেলার টাঙ্কির খাল মাছঘাটের সীন্তবর্তী এলাকায় বরযাত্রীবাহী ট্রলারডুবির ঘটনায় নববধূসহ ১০ জনের লাশ উদ্ধারের ঘটনা ছিল খুবই আলোচিত।

নিউজটি শেয়ার করুন:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Priyo Upakul
Design & Developed BY N Host BD
error: Content is protected !!