বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন

নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে সরকারকে জনবিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্র চলছে—দিলীপ বড়ুয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের (এমএল) সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া বলেছেন, ‘একটি স্বার্থন্বেসী গোষ্ঠী পরিকল্পিতভাবে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে সরকারকে জনবিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্র করছে। তারা একইভাবে ১৯৭৪ সালেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে জনবিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা করেছিলো। সরকারকে এ বিষয়ে সতর্ক হতে হবে; পেঁয়াজ-চাল-ডাল ও তেলসহ নিত্যপণ্যের সিন্ডিকেটদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের রুখে দিতে হবে। না হলে জনবিচ্ছিনের সুযোগ নিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করে ষড়যন্ত্রকারীরা রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলের পায়তারা করবে।’
তিনি বলেন, ‘প্রগতিশীল দল হিসেবে আমরা চাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক শক্তি রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকুক। কিন্তু সেই শক্তি যদি ভুল কর্মকাণ্ডের কারণে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়; তখন জনগণ পরিবর্তনের জন্য উন্মুখ হয়ে পড়বে। তাই ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখার পাশাপাশি ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধসহ সরকারকে জনগণের কল্যাণে কাজ করতে হবে।’ তিনি বৃহস্পতিবার রাতে সাম্যবাদী দলের প্রতিষ্ঠাতা ভাষাসৈনিক কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহার ৩২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
উপজেলার তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে জেলা সাম্যবাদী দলের উদ্যোগে আয়োজিত এ স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন দলটির পলিট ব্যুরোর সদস্য কমরেড ধীরেন সিংহ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বাবুল বিশ্বাস ও কমরেড মহিউদ্দিন মহিম।
জেলা সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড নুরুল আমিনের সভাপতিত্বে এবং জেলা সদস্য দিদার হোসেনের সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল খায়ের, অধ্যক্ষ একেএম জাহেদ বিল্লাহ ও প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রধান শিক্ষক শাহানা বেগম চিনু প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহার স্মৃতিচারণ করে দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘কমরেড তোয়াহা ছিলেন একজন সত্যিকারের বিপ্লবী নেতা। যিনি গণমানুষের মুক্তির লক্ষ্যে শত প্রতিকূলতার মাঝেও সমাজতন্ত্রের বীজ বপন করেছিলেন। কমরেড তোহায়ার সেই সমাজতন্ত্র বাস্তবায়নের জন্য আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কারণ, সমাজতন্ত্র ছাড়া জনগণের সত্যিকারের মুক্তি নেই। সরকার আসে, সরকার যায়; কিন্তু জনগণের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয় না। একমাত্র সমাজতন্ত্রই পারে জনগণের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে।’

নিউজটি শেয়ার করুন:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Priyo Upakul
Design & Developed BY N Host BD
error: Content is protected !!