বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে হামলার মামলা!

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হামলার অভিযোগ এনে প্রতিপক্ষকে মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ‘প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে’ উপজেলার চরবসু এলাকার কৃষক বেলাল হোসেন এ মামলা দায়ের করেন। গত বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দায়ের করা এ ‘সাজানো’ মামলায় একই এলাকার আইয়ুব আলীসহ সাতজনকে আসামি করা হয়। বিচারিক হাকিম মামলাটি এফআইআর হিসেবে রুজু করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কমলনগর থানাকে নির্দেশ দেন।
সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, ওই এলাকার মো. হাছান গত ২৪ অক্টোবর বিকেলে মোটরসাইকেলে করে পিতা নাজির আহাম্মদসহ আরও এক আরোহীকে নিয়ে চরবসু থেকে করুনানগর যাচ্ছিলেন। তাদের বহনকারী মোটরসাইকেলটি চরঠিকা আশ্রায়ন কেন্দ্রের কাছাকাছি গেলে দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজিচালিত একটি অটোরিক্সাকে সাইড করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের ওপর আচড়ে পড়ে। এতে চালক হাসান ও তার পিতা নাজির উল্যাহ মারাত্মক আহত হলে পথচারীরা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে নোয়াখালীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু ঘটনার পরদিন হাসানের ভাই বেলাল হোসেন সেখান থেকে তাদেরকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখান থেকে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র নিয়ে হামলার ‘নাটক সাজিয়ে’ লক্ষ্মীপুর আদালতে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে একটি ‘মিথ্যা’ মামলা দায়ের করেন। মামলার অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, প্রতিপক্ষ আইয়ুব আলী লোকজন নিয়ে বাদির জমি দখল করতে গেলে তারা বাধা দেন। ওই সময় প্রতিপক্ষ হামলা চালালে তার ভাই ও বাবা গুরুতর আত হন।
এদিকে সরেজমিনে গেলে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মো. চৌধুরী, নুরউদ্দিন ও আবদুল কাদের জানান, ২৪ অক্টোবর বিকেলে ঘটনাস্থলের পাশে তারা কৃষি কাজ করছিলেন। ওই সময় হাসান ও তারা পিতা নাজির উল্যাহকে বহনকারী মোটরসাইকেলটি দুর্ঘটনার শিকার হলে আশ-পাশের আরও অনেকেসহ তারা এগিয়ে যান। দুর্ঘটনায় হাসানের পা ভেঙে যাওয়ায় সিএনজিচালিত একটি অটোরিক্সায় করে তাদেরকে নোয়াখালী হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। এখন এ ঘটনাটিকে পুঁজি করে হামলার ‘নাটক সাজিয়ে মিথ্যা মামলা’ করায় কথা শুনে তারা হতবম্ভ হয়ে পড়েছেন।
নোয়াখালী হাসপাতালে নিতে হাসান ও তার পিতাকে বহনকারী অটোরিক্সার চালক মো. শরিফ জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার পর তিনিই ঘটনাস্থল থেকে আহতদেরকে হাসপাতালে নিয়ে গেছেন।
মামলার ভুক্তভোগী আসামী আইয়ুব আলী জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে সড়ক দুর্ঘটনার মতো একটি ঘটনাকে পুঁজি করে দায়ের করা ‘মিথ্যা মামলায়’ তারা এখন এলাকা ছাড়া। যে কারণে, মামলাটির সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রশাসনের কাছে তিনি বিচার দাবি করছেন।
এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মামলার বাদি বেলাল হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
স্থানীয় চরকাদিরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. খোকন জানান, সড়ক দুর্ঘটনার মতো একটি ঘটনায় হামলার মামলা দায়ের হওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে এখন ক্ষোভ বিরাজ করছে। তিনিও এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানান।
কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, আদালতের নির্দেশনা আসার পর মঙ্গলবার তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সুষ্ঠু তদন্ত করেই এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Priyo Upakul
Design & Developed BY N Host BD
error: Content is protected !!